পৃথিবীর ভূ-স্বর্গ কাশ্মীর ভ্রমণ-পর্ব -৫

আমরা আমাদের দ্বিতীয় দিনের ট্যুর শুরু করতে যাচ্ছি । আবহাওয়াটা শীতল হাওয়ায় রাতে খুব ফ্রেশ ভালো একটা ঘুম হলো। যথারীতি সাতটার মধ্যে আমরা সোনামার্গ এর উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়ে গেলাম । আমরা মাঝ রাস্তায় আমাদের নাস্তা সেরে নেব । আমরা যে হোটেলে উঠেছি সেই হোটেলের ম্যানেজার শাকিল দার । পুরো ভ্রমণটাই শাকিল আমাদেরকে ভালো গাইড লাইন দিয়েছে । শাকিল আমাদেরকে বলে দিলো কোথায় যেয়ে নাস্তা করব, কোথায় যেয়ে গাড়ি পার্কিং করব কোথায় থেকে আবার নতুন গাড়ি নিতে হবে । যাই হোক আমাদের আজকের যাত্রা শুরু । শ্রীনগর থেকে সোনামার্গ এর দূরত্ব প্রায় একশো দুই কিলোমিটারের মতো । আমাদের যেতে এক ঘন্টা ত্রিশ মিনিট থেকে 1 ঘন্টা 40 মিনিট সময় লাগবে।

সোনামার্গ থেকে জিরো পয়েন্ট যাব আমরা । সোনামার্গ গিয়ে আমাদেরকে নতুন আরেকটি গাড়ি নিতে হবে কারণ এই গাড়ি পাহাড়ি রাস্তা দিয়ে যেতে পারবে না । সোনামার্গ থেকে জিরো পয়েন্ট যেতে আমাদের সমতল ভূমি থেকে 14 হাজার ফিট উপরে রাস্তা দিয়ে যেতে হবে খুবই অ্যাডভেঞ্চার একটা ভ্রমণ হতে যাচ্ছে আজকে। ভাবতেই গা কেমন জানি ভয় শিঁউরে উঠলো । আমাদের সাথে সাইফুল ভাই উনি তো ভয়ে বাসায় ফোন দিয়ে দোয়া করার জন্য অনুরোধ করলো । আমরা আল্লাহতালার কাছে শুকরিয়া আদায় করে যাত্রা শুরু করলাম ।

আমাদের গাড়ি সোনামার্গ উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করলো। শ্রীনগর শহর পেরিয়ে খানিকটা যাওয়ার পরেই দারুন এক অনুভুতি শুরু হল । রাস্তার দু’পাশে সুবিশাল প্রাচীন বড় বড় সেঞ্চুরি গাছ আর চলমান জলরাশির বহমান। খুবই হিমশীতল জলরাশি। এ যেন এক বিশাল স্বর্গরাজ্য। মাঝপথে সিন্ধু নদীর পাড়ে এসে সকালের নাস্তার জন্য যাত্রাবিরতি করলাম। ঠিক যে জায়গাটিতে যাত্রাবিরতি করলাম সেখান থেকে সিন্ধু নদী দেখতে অপরুপ সৌন্দর্য দেখায় । সিন্ধু নদীতে পাহাড় থেকে নেমে আসা বরফ গলিতে হিম শীতল পানি তার সাথে পানির গর্জন বেশ ভালই লাগছিল । আবহাওয়া এতটাই শীতল ছিল শরীরে কাঁপন শুরু হয়ে গেল ।সিন্ধু নদীর পাড়ে আমরা সকালের নাস্তা সেরে আধাঘন্টা সময় অতিবাহিত করলাম। 30 মিনিট পর পুনরায় আমরা আমাদের নির্দিষ্ট যাত্রা শুরু করলাম ।

সোনমার্গের পরিবেশ তুষারময় পাহাড়ের পিছনে সুনীল আকাশ । মন জুড়ানো এক স্বর্গরাজ্য। এই নৈসর্গিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে করতে আমরা পৌছে গেলাম সোনামার্গ গাড়ি পার্কিং স্থানে । সোনামার্গ আসার আগ পর্যন্ত বেশ কিছু ছোট ছোট পর্যটন এরিয়া পাবেন যেগুলোতে আমরা নামিনি।সোনামার্গ এ আপনি দুটি পর্যটন এরিয়া পাবেন একটি হচ্ছে জোজিলা পাস ,আরেকটি হচ্ছে জিরো পয়েন্ট আমরা জিরো পয়েন্ট যাব। জোজিলা পাস প্রমাণের জন্য ঘোড়া নিয়ে যেতে হবে । জিরো পয়েন্ট গেলে আপনাকে গাড়ি নিয়ে যেতে হবে কারণ জিরো পয়েন্ট যাওয়ার রাস্তা সমতল ভূমি থেকে প্রায় 14 হাজার ফুট উপর দিয়ে। আমরা জিরো পয়েন্ট যাব সেই অনুযায়ী গাড়ি ঠিক করতে চেষ্টা করলাম । সোনামার্গ থেকে জিরো পয়েন্ট যদিও গাড়ি ভাড়া 1500 রুপির বেশি না কিন্তু সেখানে আপনি দালালের খপ্পরে পড়তে পারেন তাই আপনি বেশ দামাদামি করে গাড়ি ঠিক করে নিবেন।

( চলবে ….)

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*